পাতা

সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজারের প্রতিবেদন

“বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম”

নারায়ণগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ৩য় বার্ষিক সদস্য সভার সম্মানিত সভাপতি, মঞ্চে উপবিষ্ট সমিতি বোর্ডের সম্মানিত এলাকা পরিচালক ও মহিলা পরিচালকবৃন্দ, সম্মানিত গ্রাহক সদস্য বৃন্দ, আমন্ত্রিত অতিথি ও সাংবাদিকবৃন্দ, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড হতে আগত কর্মকর্তাবৃন্দ ও অত্র প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মকর্তা/কর্মচারীবৃন্দ এবং সুধীমন্ডলী আসসালামু আলাইকুম।

শীতের এই হিমেল সকালে আপনার অনেক দূর-দুরান্ত থেকে কষ্ট স্বীকার করে নারায়ণগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ৩য় বার্ষিক সদস্য সভায় উপস্থিত হয়ে এ অনুষ্ঠানকে সাফল্যমন্ডিত করে তোলার জন্য আমি সমিতি ব্যবস্থাপনার পক্ষ থেকে আপনাদের সকলকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

 

পল্লী এলাকার অবহেলিত জনগোষ্ঠির আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে “লাভ নয় লোকসান নয়” নীতিমালার ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ সোনারগাঁও, বন্দর ও রূপগঞ্জ (আংশিক) এই তিনটি উপজেলা নিয়ে গঠিত। তম্মধ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ০৯টি ওয়ার্ড রয়েছে। সমিতি ২০১৫ সালে যাত্রা শুরু করে নভেম্বর’২০১৭ ইং পর্যন্ত প্রায় ২০৮০ কিঃমিঃ বৈদ্যুতিক লাইন নির্মাণের মাধ্যমে ২২৯০৩৮ জন গ্রাহক সংযোগ সুবিধা সৃষ্টি করে বিভিন্ন শ্রেণীর আবাসিক ২১৬৬৭৮টি, বাণিজ্যিক ৫৯,২৮টি, বৃহৎ ও ক্ষুদ্রশিল্প ৩৩১৭টি, সেচ ১০৪২টি এবং অন্যান্য ২০৭৩টি সহ সর্বমোট ২২৯০৩৮টি সংযোগ প্রদান করা হয়।

 

নারায়ণগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ ২০১৫ সাল হতে অগ্রযাত্রা শুরু করে। শুরুতেই সমিতির সিষ্টেম লস ছিল প্রায় ৮.৩৭% এবং বিল আদায়ের হার ছিল প্রায় ৯৭.৫১%। সকল কর্মকর্তা/কর্মচারীদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলশ্রুতিতে সিষ্টেম লস দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে এবং বিদ্যুৎ বিল আদায় বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে সমিতি আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছে।

 

কর্মকর্তা/কর্মচারীদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে সমিতির অর্থনৈতিক অবকাঠামো দিন দিন মজবুত হচ্ছে। আবাসিক, বাণিজ্যিক এবং শিল্প প্রতিষ্ঠানে কিভাবে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করা যায় সে বিষয়ের উপর লিফলেট, মাইকিং, ডিস চ্যানেলে ব্যাপক প্রচার করা হচ্ছে। তাছাড়া হাট-বাজার, স্কুল-কলেজ, ইউনিয়ন পরিষদ এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে মাল্টি মিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের পদ্ধতি গ্রাহকদের দেখানো হচ্ছে। এতে করে গ্রাহক সচেতনতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। গ্রাহকদের সমস্যা দ্রুত সমাধানের জন্য সপ্তাহের প্রতি রবিবার সকাল ০৯.০০ ঘটিকা হতে দুপুর ১২.০০ ঘটিকা পর্যন্ত সমিতির সদর দপ্তরসহ সকল জোনাল অফিসে একজন কর্মকর্তার উপস্থিতিতে “পাবলিক হেয়ারিং ডে” পালন করা হচ্ছে।গ্রাহকদের সমিতির সেবা সম্পর্কে মতামত প্রদানের জন্য সমিতিতে ডিজিটাল পদ্ধতি স্থাপন করা হয়েছে। যাহাতে সহজেই গ্রাহকগন তাহাদের মতামত প্রদান করতে পারছেন। ফলে গ্রাহকগণের সমিতি ব্যবস্থাপনার উপর আস্থা বৃদ্ধি পেয়েছে।

 

সম্মানিত সুধী মন্ডলী,

চলতি অর্থ বছরে  (২০১৭-১৮) অত্র সমিতিতে সিষ্টেম লস হ্রাস করণের জন্য ২৩টি বিষয়ভিত্তিক পয়েন্টের উপর মাঠ পর্যায়ে কাজ চলছে। এতে সমিতির সিষ্টেম লস ৭% অর্জন করার লক্ষ্যে কর্মকর্তা/কর্মচারীগণ নিরলস কাজ করছেন। ইতিমধ্যে কাবিলগঞ্জ ১০ এমভিএ ও আখালিয়া ১০ এমভিএ উপকেন্দ্র চালু করা হয়েছে। তাছাড়া তারাব-২

২০ এমভিএ থেকে ৩০ এমভিএ তে উন্নীত করা হয়েছে। নবীগঞ্জ ২০ এমভিএ ৩৩/১১ কেভি উপকেন্দ্র নির্মাণ কাজ চলমান আছে।

 

সম্মানিত গ্রাহক সদস্যবৃন্দ,

মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি মোতাবেক আগামী ২০২১ সালে মধ্যে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ দেওয়ার লক্ষ্যে ইতিমধ্যে বন্দর উপজেলা শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। সারা বাংলাদেশের প্রতিটি ঘরে ১টি করে সুইচ বন্ধ রাখলে প্রায় ৩০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সাশ্রয় হবে। উক্ত সাশ্রয়কৃত বিদ্যুৎ দ্বারা ১টি জেলাকে আলোকিত করা সম্ভব হবে। কাজেই আপনার ঘরে প্রয়োজন না হলে ১টি করে সুইচ বন্ধ করে অন্যকে আলোকিত করার লক্ষ্যে উক্ত বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে সহযোগিতা করার জন্য সকল গ্রাহক সদস্যগণকে অনুরোধ করছি।

 

অত্র পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি একটি শিল্প সমৃদ্ধ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি। এ সমিতি নতুন নতুন সাব-ষ্টেশন নির্মাণের মাধ্যমে গ্রাহক সংযোগের সুবিধা সৃষ্টি করা হচ্ছে। সমিতির গর্বিত মালিক বৈদ্যুতিক লাইনের তার, ট্রান্সফরমার ও অন্যান্য মালামাল চুরি রোধকল্পে এগিয়ে আসার জন্য গ্রাহক সদস্যদের বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।

সম্মানিত সুধীমন্ডলী,

গ্রাহকের নিকট হতে প্রাপ্ত বিদ্যুৎ বিলের অর্থই সমিতি আয়ের একমাত্র উৎস। দ্রুত গ্রাহক সেবার স্বার্থে বর্তমানে এসএমএস এর মাধ্যমে নির্ধারিত টেলিটক মোবাইল ফোনে বিদ্যুৎ বিল গ্রহনের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তাই সময়মত বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করে সংযোগ বিচ্ছিন্নের ভোগান্তি এড়াতে গ্রাহক সদস্যবৃন্দকে অনুরোধ করছি। উদ্বেগের লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, পার্শ্ব সংযোগ প্রদান করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ জেনেও অনেক গ্রাহক তাদের মিটার হতে পার্শ্ব সংযোগ দিচ্ছেন। যার ফলে সমিতির মূল্যবান সম্পদ ট্রান্সফরমার ওভার লোডেড হয়ে নষ্ট হচ্ছে, তাছাড়াও বৈদ্যুতিক দূর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা সংঘটিত হচ্ছে। কাজেই পার্শ্ব সংযোগ গ্রহন ও প্রদান হতে সকলকে বিরত থাকার অনুরোধ করছি।

 

 

সম্মানিত গ্রাহক সদস্যবৃন্দ,

 

নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ রাখার লক্ষ্যে অত্র সমিতি কর্তৃক জাতীয় গ্রীড, সামিট পাওয়ার, ক্যাপটিভ পাওয়ার ইত্যাদির মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে। তবে বৈদ্যুতিক লাইনের সংস্পর্শে থাকা গাছপালা কেটে নিরবিচ্ছিন্ন ও নিরাপদ বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত রাখতে বিদ্যুৎ কর্মীদের সহযোগিতা করার অনুরোধ করছি। সেই সাথে বিদ্যুৎ চুরি রোধ করন ও নিয়মিতভাবে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করে গ্রাহক সেবার মান আরও উন্নত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করছি। পাশাপাশি ট্রান্সফরমার চুরি রোধকল্পে শিকল-তালা ব্যবহারের জন্য সকল গ্রাহক সদস্যদেরকে অনুরোধ করছি। এমনকি রাত্রে বিদ্যুৎ চলে গেলে ট্রান্সফরমার চুরি রোধকল্পে দ্রুত ট্রান্সফরমারের নিকট যাওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।

 

সম্মানিত সুধী মন্ডলী,

সমিতির বিভিন্ন কার্যক্রমে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের জন্য সম্মানিত গ্রাহক সদস্য, সমিতি বোর্ড, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড, স্থানীয় প্রশাসন, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ সহ সকল ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নিকট সমিতি ব্যবস্থাপনার পক্ষ থেকে আমি সকলকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে শেষ করছি। মহান আল্লাহ্ আমাদের সহায় হউন।

 

 

                                                                                                                        (মোঃআব্দুল্লাহ-আল-মামুন)

                                                                                                                        সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter